বুধবার, ০৮ ডিসেম্বর ২০২১, ০৬:১৪ অপরাহ্ন

সংবাদ শিরোনাম:
অতি বৃষ্টিতে মুকসুদপুরে পিঁয়াজের বীজতলার ব্যাপক ক্ষতি নগরকান্দায় পানিতে ডুবে দুই ভাইয়ের মৃত্যু মুকসুদপুরে বেড়েই চলছে মোবাইল চুরি ঘূর্ণিঝড় জাওয়াদের প্রভাব নগরকান্দায় দুইদিনের বৃষ্টিতে পিঁয়াজের বীজতলার ব্যাপক ক্ষতি ধর্মীয় অনুষ্ঠানের ‘কর্তৃত্ব’ নিয়ে সংঘর্ষ, আহত ১০ মুকসুদপুরে ইজিবাইকের চাকায় ওড়না পেচিয়ে স্কুল শিক্ষিকার মৃত্যু মহারাজপুরে নবনির্বাচিত চেয়ারম্যানকে বরণ করতে হাজারো মানুষের ঢল মুকসুদপুরে ১৬ ইউনিয়নের ১৩ টিতে নৌকার বিজয় ১ টিতে বিদ্রোহী ২ টিতে স্বতন্ত্র জয়ী মুকসুদপুরের ১৬ ইউপিতে শান্তিপূর্ন পরিবেশে চলছে ভোটগ্রহণ মুকসুদপুরে ভোটারদের টাকা দিতে গিয়ে ধরা, গুনলেন জরিমানা
কাশিয়ানীর সাত ইউনিয়নে চেয়ারম্যান প্রার্থী ৩৫ জন

কাশিয়ানীর সাত ইউনিয়নে চেয়ারম্যান প্রার্থী ৩৫ জন

বাংলার নয়ন সংবাদঃ গোপালগঞ্জের কাশিয়ানী উপজেলায় মোট ১৪টি ইউনিয়ন। এ উপজেলার ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনের ভোট গ্রহনের তারিখ আগামী ১১ নভেম্বার। উপজেলার ১৪টি ইউনিয়নের যে সাতটিতে আওয়ামীলীগ প্রতিক দিয়েছে তাহলো কাশিয়ানী সদর, মহেশপুর, মাহমুদপুর, রাজপাট, সাজাইল, পুইশুর ও রাতইল ইউনিয়ন।
কাশিয়ানী সদরে প্রার্থী ৩ জন। মোঃ মশিউর রহমান খান (নৌকা), মোহাম্মদ আলী খোকন (স্বতন্ত্র), মোঃ রাকিবুল ইসলাম (স্বতন্ত্র)। মহেশপুর ইউনিয়নে প্রার্থী ৮ জন। মোঃ লুৎফর রহমান মিয়া (আওয়ামী লীগ), মোঃ আবুল হাসান শেখ (স্বতন্ত্র), কাজী আবুল কালাম আজাদ (স্বতন্ত্র),শফিকুল ইসলাম (স্বতন্ত্র), মোঃ রাকিবুল ইসলাম মৃধা (স্বতন্ত্র), সাঈদুর রহমান ইয়ার আলী (স্বতন্ত্র), আবুল বাসার মোল্যা (স্বতš মোঃ হিমায়েত শিকদার (স্বতন্ত্র)। মাহামুদপুর ইউনিয়নে মোট ৭ জন প্রার্থী। মাসুদ রানা (আওয়ামীলীগ)। এম.এম আনোয়ার হোসেন (স্বতন্ত্র), অংশপতি মিস্ত্রী (স্বতন্ত্র), মনু মোল্যা (স্বতন্ত্র), মোস্তাক আলী মিলন (স্বতন্ত্র), এনামুল হক মিরাজ (স্বতস্ত্র)। রাজপাট ইউনিয়নে প্রার্থী ৩ জন। মিল্টন মিয়া(আওয়ামী লীগ) সাইফুল সরদার (স্বতন্ত্র), এম.এম দেলোয়ার হোসেন (স্বতন্ত্র)। সাজাইল ইউনিয়নে ৪ জন প্রার্থী। কাজী জাহাঙ্গীর আলম (আওয়ামীলীগ)এস.এম জাহাঙ্গীর মিয়া (স্বতন্ত্র), মোঃ মাহাবুবুল আলম (স্বতন্ত্র), মোঃ সিরাজুল ইসলাম (স্বতন্ত্র)। পারুলীয়া ইউনিয়নে প্রার্থী ৫ জন। আঃলীগের মুকিমুল ইসলাম,স্বতন্ত্র প্রার্থী বিল্লাল হোসেন, মোঃ মনিরুজ্জামান, মোহাম্মদ কামরুল হাসান ও মোঃ সোহেল রানা। রাতইল ইউনিয়নে প্রার্থী ৫ জন। আওয়ামী লীগের বিএম হারুন অর রশিদ পিনু, ইসলামী আন্দোলনের আল আমিন ইসলাম, স্বতন্ত্র আনজুরুল ইসলাম, ডেভিড সুরঞ্জন বিশ্বাস ও শেখ মোঃ মনিরুজ্জামান।
একই উপজেলার এক অংশে উন্মুক্ত এবং অপর অংশে দলীয় প্রতিক এমন বিভাজিত হওয়ায় সাধারণ ভোটাররা বিষয়টি সরলভাবে গ্রহন করতে পারেননি। সমগ্র জেলায় নির্বাচনী প্রক্রিয়া একই থাকা বাঞ্ছনীয় ছিল বলে অনেকে নেতিবাচক মন্তব্য করেছেন। অনেকে বলেছেন, জাতীয় নির্বাচনের প্রতিক স্থানীয় নির্বাচনে ব্যবহার না করাই শ্রেয়। এমন প্রক্রিয়র ফলে, দলের মধ্যে বিভাজন সৃষ্টি হয় এবং বিদ্রোহী প্রার্থী হয়ে দলের শক্তিকে খর্ব করে, যা কাম্য নয়।

দয়া করে নিউজটি শেয়ার করুন..




© All rights reserved 2018 Banglarnayan
Design & Developed BY ThemesBazar.Com
error: Content is protected !!