শনিবার, ১৫ Jun ২০২৪, ১১:১৬ অপরাহ্ন

সংবাদ শিরোনাম:
মুকসুদপুরে সিসিডিবি’র কৃষি উপকরণ ও চেক সহায়তা পেলেন ১২০ সদস্য মুকসুদপুরে দুর্যোগ ব্যবস্থাপনায় জরুরী সাড়াদান বিষয়ক প্রশিক্ষণ অনুষ্ঠিত দুর্নীতিবিরোধী সাংবাদিকতায় দুদক মিডিয়া অ্যাওয়ার্ড পেলেন মুকসুদপুরের জিয়াদুল ইসলাম মুকসুদপুরে ঘুমন্ত স্ত্রী-সন্তানের শরীরে পেট্রোল ঢেলে আগুন, ৬ দিন পর স্ত্রীর মৃত্যু মুকসুদপুরে নকল আইসক্রিম তৈরির কারখানায় অভিযান, ৪০ হাজার টাকা জরিমানা মুকসুদপুরে ভূমি সেবা সপ্তাহ শুরু, চলবে ১৪ জুন পর্যন্ত মুকসুদপুরে নেশাগ্রস্ত অবস্থায় স্ত্রী-সন্তানের ওপর পেট্রোল ঢেলে আগুন পুড়েগেছে শরীরের ৫০ শতাংশ মুকসুদপুরে বিমান পরিবহন ও পর্যটন মন্ত্রী ফারুক খানকে গার্ড অব অনার প্রদান মুকসুদপুরে ভিটামিন ‘এ’ প্লাস ক্যাম্পেইন ও এ্যাডভোকেসি সভা মুকসুদপুরে জামানত হারালেন ভাইস চেয়ারম্যান প্রার্থী দুলাল
মুকসুদপুরে নেশাগ্রস্ত অবস্থায় স্ত্রী-সন্তানের ওপর পেট্রোল ঢেলে আগুন পুড়েগেছে শরীরের ৫০ শতাংশ

মুকসুদপুরে নেশাগ্রস্ত অবস্থায় স্ত্রী-সন্তানের ওপর পেট্রোল ঢেলে আগুন পুড়েগেছে শরীরের ৫০ শতাংশ

বাংলার নয়ন সংবাদঃ

গোপালগঞ্জের মুকসুদপুরে ঘুমন্ত স্ত্রী ও সন্তানের গায়ে পেট্রোল ঢেলে আগুন দেওয়ার অভিযোগ উঠেছে নেশাগ্রস্ত স্বামীর বিরুদ্ধে। এ ঘটনায় দগ্ধ হেলেনা আক্তার (৩৬) ও তার ছেলে অন্তরকে (১১) বুধবার (৫ জুন) রাত ৮টার দিকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের বার্ন ইউনিটে ভর্তি করা হয়েছে। এর আগে মঙ্গলবার (৪ জুন) দিবাগত রাত ১টার দিকে তাদের গায়ে আগুন দেওয়া হয় বলে ভুক্তভোগী হেলেনার ভাই ইমরান হোসেন জানিয়েছেন। পরে স্থানীয়রা তাদের উদ্ধার করে প্রথমে রাজৈর হাসপাতালে এবং সেখান থেকে উন্নত চিকিৎসার জন্য ফরিদপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেয়া হয়। শরীরের ৫০ শতাংশ পুড়ে যাওয়ায় ফরিদপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের কর্তব্যরত চিকিৎসক উন্নত চিকিৎসার জন্য ঢাকা মেডিকেলের বার্ণ ইউনিটে প্রেরণ করেন।

মুকসুদপুর থানার ইন্সপেক্টর তদন্ত শীতল চন্দ্র পাল বিষয়টি নিশ্চিত করে জানান, স্বামীর দেওয়া আগুনে দগ্ধ হেলেনা ও তার সন্তানকে ঢাকা মেডিকেলের বার্ণ ইউনিটে ভর্তি করা হয়েছে। এই ঘটনায় মুকসুদপুর থানায় অভিযোগ দায়েরের প্রস্তুতি চলছে। অভিযোগের প্রেক্ষিতে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে। তাদের মধ্যে হেলেনার মুখমন্ডলসহ শরীরের বিভিন্ন জায়গা দগ্ধ হয়েছে। আর তার ছেলের হাত ও পা-সহ শরীরের বিভিন্ন জায়গা দগ্ধ হয়েছে। দুজনই শঙ্কামুক্ত নন বলে চিকিৎসক জানিয়েছেন।

হেলেনার ভাই ইমরান জানান, আমার বোন হেলেনাকে মোচনা ইউনিয়নের ডুমুরিয়া গ্রামের আওলাদ শেখের ছেলে ওসমান শেখের সাথে ১৪ বছর আগে বিয়ে দেয়া হয়। বিয়ের পর থেকে সে আমার বোনকে বিভিন্ন সময় মারধর করে। স্বামী নেশাগ্রস্ত হওয়ায় আমার বোন আমাদের বাড়ি গোহালা ইউনিয়নের মনিরকান্দি গ্রামে থাকে। মঙ্গলবার রাতে ছেলেকে নিয়ে ঘরে ঘুমিয়ে ছিলেন হেলেনা। রাত ১টার দিকে হেলেনার স্বামী প্রথমে জানালা দিয়ে তাদের ওপর পেট্রোল ছুড়ে মারেন। এরপর আগুন দিয়ে পালিয়ে যান। এ সময় তাদের চিৎকারে সবাই এগিয়ে যান। পরে তাদের দ্রুত উদ্ধার হাসপাতালে নেওয়া হয়।

দয়া করে নিউজটি শেয়ার করুন..




© All rights reserved 2024 Banglarnayan
Design & Developed BY ThemesBazar.Com