রবিবার, ১৪ Jul ২০২৪, ০১:০২ অপরাহ্ন

সংবাদ শিরোনাম:
মুকসুদপুরে মাতৃস্নেহ প্রতিবন্ধী ও যুব নারী উন্নয়ন সংস্থার নিবন্ধন পাওয়ায় আনন্দ উৎসব জিআই স্বীকৃতি পেল গোপালগঞ্জের মুকসুদপুর উপজেলার জলিরপাড়ের ব্রোঞ্জের গহনা মুকসুদপুরে সাপের কামড়ে ১জনের মৃত্যু মুকসুদপুরে অনুমতি ছাড়াই চলছে চারকোল, স্বাস্থ্য ঝুঁকিতে মানুষ মুকসুদপুরের উজানীতে কৃষক মাঠ দিবস পালিত মুকসুদপুরের খান্দারপাড়ায় বিদ্যুৎ স্পর্শে নিহত ১ মুকসুদপুরে চরম বিদ্যুৎ বিভ্রাট, জনজীবন অতিষ্ঠ গাছে কথা বলছে গুজবে ভাসছে মুকসুদপুর, কেটে ফেলা হলো সেই গাছ মুকসুদপুরে সিসিডিবি’র কৃষি উপকরণ ও চেক সহায়তা পেলেন ১২০ সদস্য মুকসুদপুরে দুর্যোগ ব্যবস্থাপনায় জরুরী সাড়াদান বিষয়ক প্রশিক্ষণ অনুষ্ঠিত
শিল্পকলা একাডেমি সম্মাননা পদক পেলেন মাহবুব বাবর

শিল্পকলা একাডেমি সম্মাননা পদক পেলেন মাহবুব বাবর

বাংলার নয়ন সংবাদঃ
গোপালগঞ্জ জেলায় শিল্প-সংস্কৃতিতে বিশেষ অবদান রাখার জন্য প্রতি বছরের ন্যায় এবারও ৫ জন বিশিষ্ট ব্যক্তিকে’জেলা শিল্পকলা একাডেমি সম্মাননা পদক ২০২২’ প্রদান করা হয়।
বৃহস্পতিবার (১২ জানুয়ারী) বিকেল তিনটায় জেলা শিল্পকলা একাডেমির আয়োজনে শেখ মনি অডিটোরিয়ামে বাংলাদেশ শিল্পকলা একাডেমি প্রবর্তিত জেলা শিল্পকলা একাডেমি সম্মাননা পদক ২০২২ অনুষ্ঠিত হয়েছে। এবারে পাচটি ক্যাটাগরীতে সম্মাননা পদক দেয়া হয়। আবৃত্তিতে মাহবুব হাসান বাবরের হাতে সম্মাননা পদক, চেক, উত্তরীয় ও সনদপত্র তুলে দেন গোপালগঞ্জের জেলা প্রশাসক জনাব কাজী মাহবুবুল আলম। এ সময় উপস্থিত ছিলেন গোপালগঞ্জের অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট গোলাম কবির, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক হেদায়েতুল ইসলাম, জেলা শিল্পকলা একাডেমীর সাধারন সম্পাদক খোন্দকার এহিয়া খালেদ সাদী প্রমুখ।
পাঁচটি ক্যাটাগরীতে অন্যান্য পদকপ্রাপ্তরা হলেন, কন্ঠ সংগীতে মীরা বিশ্বাস, যন্ত্র সংগীতে আশুতোষ বালা, নাট্যকলায় মঈন আহমেদ,সৃজনশীল সাংস্কৃতিক সংগঠন গোপালগঞ্জ থিয়েটার।

মাহবু্ব হাসান বাবর ছোটবেলা থেকেই সাহিত্য ও সাংস্কৃতিক কর্মকাণ্ডে তার পদচারনা। লিখেছেন অজস্র গল্প- কবিতা, প্রবন্ধ- নিবন্ধ। যা বিভিন্ন জাতীয় ও স্থানীয় পত্রিকায় নিয়মিত প্রকাশিত হচ্ছে। দৈনিক মানব জমিনসহ জাতীয় দৈনিকে একসময় সাংবাদিকতা করেছেন।
আবৃত্তিকার – উপস্থাপক এবং সাংস্কৃতিক ব্যাক্তিত্ব হিসেবে তিনি অত্যন্ত পরিচিত মুখ। দীর্ঘ বছর বেতার-টিভি-মঞ্চে আবৃত্তি ও উপস্থাপনা করে আসছেন। ২০১৭ সালে প্রকাশ পায় তার প্রথম আবৃত্তির এ্যালবাম “ভেজামেঘের দিনগুলি”। আবৃত্তি ও উপস্থাপনায় ইতোমধ্যে তিনি পেয়েছেন পল্লীকবি জসিমউদদীন সম্মাননা পদক, মাদার তেরেসা সম্মাননা পদক, শেরে-বাংলা গোল্ডেন এ্যাওয়ার্ড, কাগজ – কলম পুরস্কার, ও জয়বাংলা সম্মাননা পদক। গল্পকার হিসেবেও তিনি যথেষ্ট পরিচিত। প্রকাশিত গ্রন্থ পাঁচটি। সাহিত্যে বিশেষ অবদানে তিনি পেয়েছেন জাতীয় সাহিত্য পদক, মাদার তেরেসা স্বর্ণপদক, সাহিত্য দিগন্ত লেখক পুরস্কারসহ অসংখ্য পুরস্কার।
তিনি মুকসুদপুর আবৃত্তি পরিষদের প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি ও উপজেলা কালচারাল ক্লাবের প্রশিক্ষক।
বাংলাদেশ-কোলকাতার অন্যতম নাট্য সংগঠন দুই বাংলার থিয়েটার ও প্রাকৃতজন নাট্যগোষ্ঠীর উচ্চারন বিষয়ক সম্পাদকের দায়িত্ব পালন করছেন।
তিনি জনপ্রিয় লোকজ সংস্কৃতি ভিত্তিক অনুষ্ঠান “মেঠোপথের” নিয়মিত উপস্থাপক এবং গোপালগঞ্জের অন্যতম সাংস্কৃতিক সংগঠন বাঁশরী শিল্পীগোষ্ঠীর সভাপতি। পেশাগত জীবনে সরকারি মুকসুদপুর কলেজে অধ্যাপনা করছেন।

দয়া করে নিউজটি শেয়ার করুন..




© All rights reserved 2024 Banglarnayan
Design & Developed BY ThemesBazar.Com